অল্প পুঁজিতে ইমিটেশন জুয়েলারি ও কসমেটিক ব্যবসা

পুঁজিতে জুয়েলারি ব্যবসা
Share the Post

এসময়ে প্রত্যন্ত অঞ্চলে বা শহরে দশটি অল্প পুঁজির লাভজনক ব্যবসা নিয়ে আলোচনার আজকের পর্বে থাকছে, স্বল্প পুঁজিতে কিভাবে ইমিটেশন জুয়েলারি ও কসমেটিকস ব্যবসা করব

আমরা সবাই নিজের একটি প্রতিষ্ঠান এর মালিক হতে চাই। কিন্তু বিষয়টা এখানে আমরা সবাই উদ্যোক্তা কিন্তু নিজের উদ্যোগ বাস্তবায়ন করতে গিয়ে খুব তাড়াহুড়ো করে ফেলি। আজ পুঁজি বিনিয়োগ করে কাল তার ফল পেতে চাই। কিন্তু বন্ধুরা, বাংলায় একটা কথা আছে, সবুরে মেওয়া ফলে। ধৈর্য ধারণ করলে তার ফল অবশ্যই আসবে।

আসা যাক আমাদের মুল আলোচনায়।

আমরা আজকের পর্বে অল্প পুঁজির যে ব্যবসা নিয়ে কথা বলবো, সেটা হল..

ইমিটেশন জুয়েলারি ও কসমেটিক ব্যবসা ঃ

বন্ধুরা আমাদের জনশক্তির প্রায় অর্ধেক নারী। আর এই নারীজাতির রূপচর্চা একটা বড় বাজার । মেয়েরা নিজের সৌন্দর্য বর্ধন বা আকর্ষণীয় করতে যুগে যুগে আলতা, ফিতা, চুড়ি, নোলক, সীতাপাটি থেকে আজ আস্কারা, নকল চোখের পাপড়ি, লিপলাইনার, নকল নখ ও ইমিটেশন গহনা প্রয়োজন মনে করেছে।

তাই এটার একটা বিরাট মার্কেটপ্লেস আছে। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে আপনি ঢাকার বিভিন্ন পাইকারি মার্কেট হতে মাল ক্রয় করে নিজ থানা এলাকায় বিপনন বা নিজে দোকানে দোকানে ডেলিভারি করে ব্যবসা করতে পারেন।

আপনার থানা এলাকার প্রতিটি স্কুল-কলেজ, বিশেষ করে গার্লস স্কুল এর পাশে প্রতিটি বাজারে কসমেটিকসের দোকান আছে। এদের সাথে সম্পর্ক করুন। ধৈর্য ধারণ করে ব্যবসাটা চালিয়ে যান। দেখবেন সফলতা ধরা দিবে। আর নিজেকে বেকার, ব্যর্থ, ভবঘুরে ভাববেন না। ঘুরতে ঘুরতেই ব্যবসা করুন।

এখন যেহেতু অনলাইনের যুগ, পাশাপাশি একটা ফেসবুক পেজ খুলে নিতে পারেন। ভোক্তা ও দোকানদারদের ফোন নম্বর সংগ্রহ করে তাদের নম্বর হোয়াটসঅ্যাপে, ইমোতে যুক্ত করুন। মাঝে মাঝে ছবি সহ টেক্সট করুন। অবশ্যই প্রোফেশনাল হতে হবে টেক্সটে।

কত টাকা বিনিয়োগ করতে হবে?

এই ব্যবসায় বিচিত্র পণ্য নিয়ে কাজ করতে গেলে শুরুতে ৩০-৫০ হাজার টাকা দিয়ে শুরু করতে পারেন।

প্রয়োজনে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।  হোয়াটসঅ্যাপ নং: +8801912700777

 

 

 

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।